All for Joomla The Word of Web Design
৬৪ জেলা

পাবনায় নারী সাংবাদিককে কুপিয়ে হত্যা: শ্বশুড় গ্রেফতার

বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ‘আনন্দ টিভি’র পাবনা প্রতিনিধি নারী সাংবাদিক সূবর্ণা নদীকে (৩০) কুপিয়ে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে পাবনা শহরের পৌর এলাকার আদর্শ গালর্স হাইস্কুলের সামনে ভাড়া বাসার সামনে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এদিকে সুবর্না নদী কে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় পাবনা সদর থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। মামলায় দায়েরের পর মামলার প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিহত সুবর্ণা নদী জেলার আটঘরিয়া উপজেলার একদন্ত গ্রামের মৃত আইয়ুব আলীর মেয়ে। তার জান্নাত নামের ৯ বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, নারী সাংবাদিক সূবর্ণা নদী বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আনন্দ টিভি জেলা প্রতিনিধি ছিলেন। মঙ্গলবার রাতে পেশাগত দায়িত্ব পালন শেষে বাসায় ফিরছিলেন। শহরের আদর্শ গালর্স হাইস্কুলের সামনে তার ভাড়া বাসায় ঢোকার সময় পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা ১০/১২ জনের একদল সশস্ত্র দূর্বৃত্ত সূবর্ণা নদীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারী কুপিয়ে পালিয়ে যায়। তার চিৎকারে স্থানীয়রা ছুঁটে এসে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত সুর্বণা নদী শহরের ভাড়া বাসায় বোন ও একটি সন্তান নিয়ে বসবাস করতেন।
নিহত নদীর পরিবার জানান, পাবনার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবুল হোসেনের ছেলে রাজিব হোসেনের সাথে তিন-চার বছর আগে সূবর্ণার বিয়ে হয়। বিয়ের বছর খানের যেতেই তাদের ছাড়াছাড়িও হয়ে যায়। ছাড়াছাড়ির পরপরই সুবর্ণা নদী পাবনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে রাজিবের বিরুদ্ধে একটি যৌতুক মামলা করে।

মামলায় তার সাবেক স্বামী রাজিব, শ্বশুড় আবুল হোসেনসহ তিনজনকে আসামী করা হয়। মঙ্গলবার ওই মামলার সাক্ষ্য দেয়ার নির্ধারিত দিন ছিল। আদালতের নদী তার সাক্ষ্য প্রদানও করেন। এদিকে বুধবার সকালে সূবর্ণা নদীকে হত্যার প্রতিবাদে, দোষীদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে পাবনায় কর্মরত সাংবাদিকরা। পাবনা প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রফেসর শিবজিত নাগ, সাধারন সম্পাদক আঁখিনুর ইসলাম রেমন, সাবেক সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম রবি, সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি আব্দুল মতীন খান, সাবেক সাধারন সম্পাদক এবিএম ফজলুর রহমান, আনন্দ টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক আফজাল হোসেনসহ অনেকে। এদিকে সুবর্না নদী কে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় পাবনা সদর থানায় মামলা দায়ের করেছে নিহত নদীর মা মর্জিনা বেগম।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস জানান, বুধবার দুপুরে সাংবাদিক সুবর্না নদীর মা মর্জিনা বেগমের দায়ের করা মামলায় নদীর সাবেক শশুর শিল্পপতি আবুল হোসেনসহ তিনজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা চার থেকে পাঁচজনকে আসামী করা হয়েছে। পুলিশ আরো জানায় মামলা দায়েরের পর নদীর সাবেক শশুর শিল্পপতি আবুল হোসেনের মালিকানাধীন শিমলা ডায়াগনষ্ঠিকে অভিযান চালিয়ে আবুল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়।

৮ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

শিরোনাম:
  ❖   কোন ষড়যন্ত্রেই বাংলাদেশের উন্নয়নের চাকা থামবে না : সমাজকল্যাণমন্ত্রী   ❖   বিএনপির রাজনীতি চলে গেছে জিয়া পরিবারের বাইরে   ❖   নির্বাচন কমিশন কোনো দলের কথায় কাজ করবে না : সিইসি   ❖   সেই গোপালগঞ্জ এই গোপালগঞ্জ   ❖   দেশে ফিরলেন প্রধানমন্ত্রী   ❖   আমিও একজন দালাল!   ❖   জামিন পেল ‘ধর্ষক বাবা’ সেই রাম রহিম   ❖   চীনের আন্ডারগ্রাউন্ড এয়ারবেস তৈরি নিয়ে চিন্তিত ভারত!   ❖   ফরিদপুরে পুড়ে গেছে ২৫ দোকান, ৩ কোটি টাকার ক্ষতি   ❖   সদরঘাটে লঞ্চের ধাক্কায় ট্রলার ডুবি, ২ শিশু নিখোঁজ