All for Joomla The Word of Web Design
ইদানিং ভাবনা

তরুনদের সাথে সামর্থ্য অনুযায়ী শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ান

মোঃ ইনামুল হাসান মাসুম,
কানাইপুর, ফরিদপুর
শীতের প্রকোপ বাড়ছে। চলতি শীত অনেকের জন্য দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে ফরিদপুর সদর থানার কানাইপুর ইউনিয়নের কাশিমাবাদ গ্রামের মানুষের জন্য চলমান শৈত্যপ্রবাহ দুর্ভোগ বাড়িয়ে তুলেছে। শীত মৌসুম কেটে যাওয়ার আগে আরও শৈত্যপ্রবাহের আশঙ্কা আছে। শীতের দুর্ভোগ আরও বাড়তে পারে। গত কয়েক দিনের শৈত্যপ্রবাহে সবচেয়ে বেশি বিপদে পড়েছে কাশিমাবাদ ডাঙ্গীর পাড়া গ্রামের অভাবী ও অসহায় গরিব মানুষ।

শীতে অভাবী মানুষের জন্য এখন জরুরি দরকার হয়ে পড়েছে শীতবস্ত্রের। কিন্তু গ্রামের এসব মানুষের অনেকের পক্ষে আলাদাভাবে শীতের কাপড় কেনা দুঃসাধ্য। প্রতি বছর শীতের সময় দেশের বিভিন্ন সামাজিক সংস্থা এমনকি ব্যক্তিপর্যায়ে শীতার্ত মানুষের জন্য সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেয়।

অতীতে সরকারি পর্যায়েও গরিব মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে এবার সে ধরনের উল্লেখ করার মতো কোনো তৎপরতা কাশিমাবাদ গ্রামের অসহায় জনগনের চোখে পড়ছে না।

সমাজের বিত্তবান ও মানবিক বোধসম্পন্ন ব্যক্তিরা যদি দুর্দশাগ্রস্ত মানুষের পাশে না দাঁড়ায়, তা হলে মানুষের দুর্ভোগ আরও বাড়বে। এ ক্ষেত্রে সবাইকে নিজ নিজ দায়িত্ববোধ থেকে এগিয়ে আসতে হবে। ব্যক্তিপর্যায়ের উদ্যোগের মাধ্যমে এমন পরিস্থিতি থেকে শীতার্তদের রক্ষা করা যায়।

আমরা জানি, আল্লাহর ইচ্ছায় প্রকৃতির অমোঘ নিয়মেই ঋতুর পালাবদল ঘটে। প্রকৃতির আচরণ মানুষের অসহায়ত্বকে আরও প্রকট করে তোলে। হাড়কাঁপানো এই শীতেও অনেককে খোলা আকাশের নিচে রাত যাপন করতে হয়। ছিন্নমূল অসহায় মানুষ খড়কুটা জ্বালিয়ে শীত মোকাবিলার প্রয়াস চালায়। এমতাবস্থায় শীতার্ত মানুষের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়ানো বেশ দরকার হয়ে পড়েছে।

মানবতার ধর্ম ইসলামেও সবার প্রতি দয়া প্রদর্শন করতে বলা হয়েছে। বলা হয়েছে, যার অন্তরে দয়ামায়া আছে, যে পরোপকারী, আল্লাহ তাকে ভালোবাসেন। এ প্রসঙ্গে হজরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘তোমরা ক্ষুধার্তকে খাদ্য দাও, রুগ্ন ব্যক্তির সেবা করো এবং বন্দীকে মুক্ত করো অথবা ঋণের দায়ে আবদ্ধ ব্যক্তিকে ঋণমুক্ত করো।’ –সহিহ বোখারি

চলতি শীতে শীতার্ত মানুষের প্রতি সমাজের সামর্থ্যবান ও বিত্তশালীদের সাহায্য ও সহানুভূতির হাত সম্প্রসারিত করা প্রয়োজন। পর্যাপ্ত পরিমাণে শীতবস্ত্র সরবরাহ করে সাধ্যমতো শীতার্তদের পাশে এসে দাঁড়ানো দরকার। নিঃস্বার্থভাবে বিপদগ্রস্ত মানুষের সাহায্য ও সেবা করা মানবধর্ম।

অসহায় মানুষের দুর্দিনে সাহায্য, সহানুভূতি ও সহমর্মিতার মনমানসিকতা যাদের নেই, তাদের ইবাদত-বন্দেগি আল্লাহর দরবারে কবুল হয় না। সুতরাং নামাজ, রোজার সঙ্গে কল্যাণের তথা মানবিকতা ও নৈতিকতার গুণাবলি অর্জন করাও জরুরি।

এ জন্য জাতি-ধর্ম-বর্ণ দলমত-নির্বিশেষে বিত্তবানদের শীতার্ত বস্ত্রহীন মানুষের পাশে অবশ্যই দাঁড়ানো উচিত। এ কাজের জন্য নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পরকালীন পুরস্কারপ্রাপ্তির কথা ঘোষণা করেছেন। ইরশাদ হয়েছে, ‘এক মুসলমান অন্য মুসলমানকে কাপড় দান করলে আল্লাহ তাকে জান্নাতের পোশাক দান করবেন।

ক্ষুধার্ত অবস্থায় খাদ্য দান করলে আল্লাহ তাকে জান্নাতের সুস্বাদু ফল দান করবেন। কোনো মুসলমানকে তৃষ্ণার্ত অবস্থায় পানি পান করালে আল্লাহ তাকে জান্নাতের সিলমোহরকৃত পাত্র থেকে পবিত্র পানি পান করাবেন।’ সুনানে আবু দাউদ

হাড়কাঁপানো শীতে যে বিপুল জনগোষ্ঠী বর্ণনাতীত দুঃখ-কষ্টে দিন যাপন করছে তাদের পাশে দাঁড়ানো ধর্মপ্রাণ মানুষের নৈতিক দায়িত্ব। এ বিষয়ে হজরত রাসূলে কারিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি কোনো মুমিনের পার্থিব একটি মুসিবত দূর করবে, আল্লাহ কিয়ামতের দিন তার মুসিবতসমূহ দূর করে দেবেন। আর যে ব্যক্তি কোনো অভাবী মানুষকে সচ্ছল করে দিবে, আল্লাহ তাকে ইহকাল ও পরকালে সচ্ছল করে দিবেন এবং আল্লাহ বান্দার সাহায্য করবেন যদি বান্দা তার ভাইয়ের সাহায্য করে।’ –সহিহ মুসলিম।

তরুছায়া সংগঠন সাথে পরিচয়ঃ

তরুছায়া পরিবারটা হচ্ছে!
একেবারেই ভিন্নো ধারার একটি আদর্শিক সংগঠন। এটা সম্পূর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের এবং যুবকদের দ্বারা পরিচালিত। যুবকদের সেচ্ছায় ব্যক্তিগত সময় এবং মননশীল মেধা দিয়ে সমাজের হত দরিদ্রতা নিরসনে বিভিন্ন ভাবে সহযোগীতা ও সামাজিক কাজে নিজেদেরকে সার্বক্ষনিক নিয়জিত রাখে।

গত শুক্রবার ছুটির দিন শহর থেকে গ্রামের পরিবেশ উপভোগ করতে ছুটে এসেছে, দন্ত ডাঃ মোঃ রুহুল আমিন ভাইয়ের মাধ্যমে সকলের সাথে পরিচয় হয়। পরিচিতি পর্বে কে কোথায় কি করে, সে বিষয়ে পরিচয় হওয়ার পরে আমি তাদেরকে কাশিমাবাদ ডাঙ্গীপাড়া নামক এলাকার কিছু অসহায় গরীব মানুষের জনজীবন পরিদর্শন করতে বলি।

সকলেই এক বাক্যে রাজী হয়ে দ্রুত ছুটে আসে এবং স্ব-চোখে নিতান্ত গরীব মানুষ ছোট, বড়, মহিলা, পুরুষ ও শিশু বাচ্চাদের প্রকোপ শীতে বস্রহীন অবস্থায় কাপতে দেখে সকলেই মানবিক ভাবে খুবই মর্মাহত হয়েছে। যদিও তরুছায়া পরিবার একটি ছোট সংগঠন এরপরেও তাদের নিজ তহবিল থেকে সন্চয়কৃত অর্থের দ্বারা অসহায় গরীব এবং পথচারীদের মাঝে এবারের শীত বস্র বিতরন শেষ করেছে।

যাইহোক কাশিমাবাদ গ্রামের হত দরিদ্র শিশু বাচ্চাদের স্ব-চোখে দেখে মানবিক প্রত্যয়ে তরুছায়া পরিবার শূন্য তহবিল নিয়েই মননশীল মেধা খাঠিয়ে বিভিন্ন ভাবে অসহায় মানুষের জন্য শীতবস্র জোগাড় করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। তাই আসুন! সমাজের ধনী লোক এবং প্রবাসী ভাইয়েরা সকলেই যার যার নিজ স্থান থেকে তরুছায়া পরিবারের যুবক ছাত্রদের পাশে থেকে সম্মিলিত ভাবে অর্থনৈতিক সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেই, হত দরিদ্রদের মাঝে শীত বস্র বিতরন করতে শরীক হন। আপনার একটু সহযোগীতায় গরীব দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটবে এবং মানবতার জয় হবে। আগামী শুক্রবারে শীত বস্র বিতরন করার তারিখ নির্ধারন করা হয়েছে।

#বিকাশ-০১৭৪৭-৫৪৫৩৩৯ (পার্সোনাল)
#রকেট-০১৭৮৬-১৪২০১৩

প্রয়োজনে যোগাযোগঃ
০১৯৯২-০৯০১৪৭
মোঃ সজীব।
০১৭১৫-৮৪২৯৯৫
মোঃ ইনামুল হাসান মাসুম।
০১৯৯২-০৯০১৪৬
মোঃ সাকিব।

৭৫ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

শিরোনাম:
  ❖   হেফাজতের ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব   ❖   হাটহাজারী মাদরাসার বর্তমান অবস্থা শান্তিপূর্ণ   ❖   ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে আমার রাজনৈতিক পত্র   ❖   ভাসানচর নিয়ে জাতিসঙ্ঘের মূল্যায়ন চায় ইইউ   ❖   এমসি কলেজে ‘ছাত্রলীগের দখলে থাকা’ কক্ষ থেকে অস্ত্র উদ্ধার   ❖   তরুণীকে তুলে নিয়ে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ‘ছাত্রলীগের কক্ষের’ সামনে গণধর্ষণ   ❖   ক্ষমতা দখলের চক্রান্ত ॥ জেদ্দায় বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে গোপন বৈঠক   ❖   সরকার বিএনপির গোপন বৈঠকেরও খবর পায়: কাদের   ❖   উপ-নির্বাচনে সন্ত্রাসী আলামত দেখছেন রিজভী   ❖   বিশ্বের মাফিয়া চক্রের সঙ্গে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত বিএনপি