All for Joomla The Word of Web Design
ধর্ম-দর্শন

ফাতাওয়া: রূপরেখা, পদ্ধতি ও প্রয়োগে চাই সতর্কতা: শায়খ সালাহ আল-বুদাইর

ইসলাম সহজ-সরল একটি ধর্ম৷ কোন বক্রতা, জটিলতা বা কঠোরতাকে সমর্থন করে না ইসলাম ৷ করেনা মানুষকে বিপদের সম্মুখীন বা অসামর্থ বিষয়ে আমলের জন্য বল প্রয়োগ৷ মধ্যপন্থা, সহজলব্ধতা বা উদারতা হলো ইসলামের অন্যতম বৈশিষ্ট্য৷

মহান আল্লাহ বলেন : “দীনের ব্যাপারে তিনি তোমাদের উপর কোন কঠোরতা আরোপ করেননি৷” (সূরা হজ্ব-৭৮)৷
“আল্লাহ তোমাদের উপর আরোপিত বিধান সহজ করতে চান, কেননা মানুষকে দুর্বল করে সৃষ্টি করা হয়েছে৷” (সূরা নিসা-২৮)৷
“আল্লাহ তোমাদের জন্য সহজ করতে চান, কঠিন করতে চান না৷” (সূরা বাকারা-১৮৫)৷
“কাফেরদের ফিৎনার আশংকা থাকলে নামাযে কসর করলে কোন সমস্যা হবে না৷” ( সূরা নিসা-১০১)৷

“হযরত ইয়া’লা বিন উমাইয়্যা (রাঃ) বলেন : উক্ত আয়াত সম্পর্কে আমি হযরাত ওমর (রাঃ) কে প্রশ্ন করেছিলাম, তিনি বল্লেন : তুমি যেভাবে আশ্চর্য হয়ে আমাকে প্রশ্ন করছো যে, মানুষকে অলসতায় ধরবে, আমিও রাসূল (সাঃ) কে প্রশ্ন করেছিলাম, তিনি বলেছেন : এটা আল্লাহর পক্ষ থেকে তোমাদের জন্য হাদিয়া, অতঃএব তোমরা আল্লাহর হাদিয়া গ্রহণ কর৷” (মুসলিম)৷

হযরত আবু হুরাইরা (রাঃ) বর্ণনা করেন যে, রাসূল (সাঃ) ইরশাদ করেছেন: “ইসলাম ধর্ম সহজ, যে এখানে কঠোরতা নিয়ে আসবে তা পরিত্যাজ্য …. ” (বুখারী ও মুসলিম)৷

অন্য হাদিসে রাসূল (সাঃ) ইরশাদ করেন: “তোমরা এমন একটা জাতি, যাদের থেকে সহজতা কাম্য৷” (আহমাদ)৷
“তোমাদের জন্য যে বিষয়টি সবচেয়ে সহজ সেটিই তোমাদের জন্য উত্তম দীন৷” (আহমাদ)৷
“সহজ কর, কঠোরতা কর না৷ শান্ত কর, আতঙ্কিত কর না৷” (বুখারী ও মুসলিম)৷
“আমি উদারময়ী দীন নিয়ে প্রেরিত হয়েছি৷” (আহমাদ)৷

তবে সহজ অর্থ এই নয় যে, প্রতিটি মাযহাব থেকে খুঁজে খুঁজে শিথিল বিষয়গুলো অনুসরণ করবে, বিপদে পডলে সমস্যা সমাধানের জন্য ঐ সমস্ত আলেমদের শরণাপন্ন হবে যারা দলীল প্রমাণ ছাড়া মনগড়া শিথিলতা তৈরি করবে৷ বরং উদ্দেশ্য হলো অপারগ ব্যাক্তিদের জন্য শরীয়ত কর্তৃক প্রমাণিত শিথিলতা। যেমনঃ অসুস্থ, মুসাফির ও ছোটদের জন্য ফরয ও ওয়াজিব বিষয়ে শিথিলতা৷ অক্ষম ব্যাক্তির জন্য নামায বসে কিংবা শুয়ে পড়ার অনুমোদন, প্রচুর বৃষ্টিপাত বা শত্রুর আঘাতে প্রাণহানির আশংকা থাকলে ঘরে নামায পড়ার বৈধতা, সফরের ক্লান্থিময় অবস্থায় নামায কসর করার বিধান ইত্যাদি৷

আবু হামযা (রাঃ) হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রাঃ) কে সফরের সময়ে রোযা রাখার বিধান জিজ্ঞেস করলে তিনি বল্লেন: সহজ ও কঠিন, তবে তুমি সহজটা গ্রহণ কর৷

ইমাম যাহাবী বলেন : যে ব্যাক্তি মাযহাবী শিথিল বিষযগুলোর পেছনে পড়ে থাকে, অথবা মুজতাহিদদের পদস্খলনের জন্য উৎপেতে থাকে, সে যেন নিজের দীনকেই হাল্কা করে দিল৷

ইমাম ইবনে হাযম বলেন : কিছু মানুষ আছে, যাদের কাছে দীন এতই উদাসীন ও তাকওয়ার মান এতই নিচু যে, আল্লাহ ও তাঁর রাসূল (সঃ) কী বলেছেন সেটার তোওয়াক্কা না করে শুধুমাত্র প্রবৃত্তির পুজা করে৷

ইমাম আহমাদ বলেন: একজন মানুষ যদি সবসময় দীনের শিথিল বিষয়গুলোর পেছনে পড়ে থাকে, তো সে ফাসেক৷

হাসান বসরী বলেন: বাড়াবাড়ি ও ছাড়াছাড়ির মাঝখানেই হলো সুন্নত৷ অতঃঅব এই সুন্নতের উপর অটল থাকতে ধৈর্য্য ধারণ কর৷

হযরত আলী (রাঃ) বলেন: কোন ফকীহ কোন মানুষকে আল্লাহর রহমত থেকে নৈরাশ করতে পারেন না, আল্লাহর আযাব থেকে নিরাপত্তা দিতে পারেন না, আল্লাহর নাফরমানিতে শিথিলতা প্রদর্শন করতে পারেন না, কোরান থেকে দূরে রাখতে পারেন না, না জেনে ইবাদত করার মধ্যে কোন কল্যাণ নেই, না বুঝে শুধু জানার মধ্যেও কোন কল্যাণ নেই৷

অযোগ্য মানুষ ফতোয়া দেওয়া, যাদের না আছে ইলমি পরিচয়, না আছে সে বিষয়ে দক্ষতা, অধিকন্তু ইলমি সমাজে পরিচয়হীন, এবং অজ্ঞ মানুষের পক্ষ থেকে তাদের প্রতি প্রশ্ন করা, যে বিষয়ে তার ধারণাই নেই, এসব কিছু মুসলিম উম্মাহর জন্য মুসিবত৷

ইমাম মালেক বলেন: এক ব্যাক্তি রবীয়া বিন আব্দুর রহমানের কাছে  গিয়ে দেখল তিনি কান্না করছেন, কারণ জিজ্ঞেস করা হলে বল্লেন: উম্মাহর মাঝে নতুন একটি মুসিবত দেখা যাচ্ছে , তাহলো অযোগ্য ব্যাক্তির কাছে ফতোয়া চাওয়া হচ্ছে এবং না বুঝে ফতোয়া দিচ্ছে, চোরের কারাবাস থেকে এদের কারাবাস অধিক শ্রেয়৷

যখন থেকে শরীয়ত প্রণয়নের উদ্দেশ্য বা শরয়ী বিধানের রহস্য সম্পর্কে অজ্ঞ ব্যাক্তি বা ধারণা নির্ভর মানুষ, ইলমি দক্ষতাহীন পোষাকদারি আলেম, সত্য মিথ্যার পার্থক্য না করে সন্দেহ ও সংসয়ের জগতে ডুবে থাকা ব্যক্তি, যোগ্যতা, প্রস্তুতি ও ইলমহীন ফতোয়ার রাজ্যে জোর পূর্বক বসবাসরত ব্যাক্তি, সে বিষয়ে কথা বলতে শুরু করেছে, তখন থেকে দীনে তাহরীফ ও তাবদীল শুরু হয়েছে এবং শরীয়াতের উপর যুলম ও অত্যাচার শুরু হয়েছে৷

মহান আল্লাহ বলেন: “তোমাদের জিহ্বা দ্বারা বানানো মিথ্যার উপর নির্ভর করে আল্লাহর উপর মিথ্যা রটানোর জন্য বলো না যে, এটা হালাল, এটা হারাম৷ নিশ্চয় যারা আল্লাহর উপর মিথ্যা রটায় তারা সফল হবে না৷” (সূরা নাহল-১১৬)৷
এরাই এক তরফিয়া ও আহলে ইলমদের কাছে অগ্রহণযোগ্য ফাতাওয়া দিয়ে ইসলামকে ধ্বংস করছে, ধর্মকে জ্বালিয়ে দিচ্ছে, সমাজে অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে, সমাজে যারা বিদ্যা-বুদ্ধি ও ধর্মীয় বিষয়ে দূর্বল তাদেরকে বিভ্রান্ত করছে, সত্য কে মিথ্যা, আর মিথ্যাকে সত্যের রূপ দিচ্ছে৷

যারা না বুঝে না জেনে পার্থিব উদ্দ্যেশ্যে বা নিজের সম্মানহানির কথা বিবেচনা করে মনগড়া শরয়ী কোন বিষয়ে ফাতাওয়া দিচ্ছে বা সমাজে খ্যাতি অর্জনের জন্য ফাতাওয়া দিচ্ছে, স্পষ্ট দলিল বাদ দিয়ে অস্পষ্ট বা মিথ্যা দলিলের আশ্রয় গ্রহণ করছে, তারা যেন আল্লাহর উপর মিথ্যা অপবাদ দিল৷

জনৈক আলেম বলেছেন: যে দুনিয়ার বিনিময়ে নিজের পরকাল বিক্রি করে দেয় সে সবচেয়ে খারাপ, তার চেয়ে আরও খারাপ হলো যে অন্যের পরকাল বিক্রি করে দেয়৷

অতঃএব পরকালের হিসাব নিকাশের কথা স্বরণ করে সতর্ক হোন, একদিন এমন আসবে যেদিন আপনার অঙ্গ-পত্যেঙ্গ আপনার ধর্ম নিয়ে এই ধোঁঁকাবাজির বিষয়ে আপনার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিবে৷

ইমাম মালেক বলেন: কোন মাসালায় নূন্যতম সত্তর জন আলেমের সাক্ষ্য ছাড়া আমি কোন ফাতাওয়া দেইনি৷

ইমাম আহমাদ বলেন: প্রত্যেক মানুষ যে বিষয়ে সে কথা বলছে সে বিষয়ে আল্লাহকে ভয় করা দরকার, কেননা পরবর্তী সময়ে সে এ বিষয়ে জিজ্ঞেসিত হবে৷

অতঃএব ফাতাওয়া একটি ইলমি আমানত৷। দীন বা ইসলামি শরীয়তকে সংরক্ষণের জন্য আমাদেরকেই এর হেফাজত করতে হবে৷ অযোগ্য ও অনভিজ্ঞ ব্যাক্তিদের ফাতাওয়া রোধ করতে হবে৷ যথাযোগ্য পদ্ধতিতে এর বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে হবে৷ আল্লাহ আমাদের সে তাওফিক দান করুন৷ আমিন৷

১৪ জমাদিউস সানী ১৪৩৯ হি. মোতাবেক ২রা মার্চ ২০১৮ ইং সালে মসজিদে নববীতে প্রদত্ত জুমার খুতবার সংক্ষিপ্ত ভাষান্তর করেছেন মুহাম্মদ নুরুল্লাহ সাঈদ।

৪ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

শিরোনাম:
  ❖   নবজাতক জন্ম—পরবর্তী করণীয় সম্পর্কিত ইসলামি নির্দেশনা   ❖   বাংলাদেশি বশির মালয়েশিয়ার মাহসা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিপি   ❖   ৫০ হাজার ধার দিয়ে লিখে নেন আড়াই কোটি টাকার চেক   ❖   একই পরিবারের ৩ জনের লাশ উদ্ধার বরিশালে   ❖   রুম্পার সারা শরীরের হাড় ভাঙ্গা   ❖   দেশের সব স্বাস্থ্যকেন্দ্রে বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন দেবে সরকার   ❖   মানুষের মতো বাচ্চা জন্ম দিল ছাগল!   ❖   নারীদের গণপরিবহনে চলাচল: পুলিশের ৯ পরামর্শ   ❖   “কুরআন-সুন্নাহর আলোকে মাযহাব” বইয়ের মোড়ক উন্মোচন   ❖   বিএনপি যে ধরনের অস্থিরতা তৈরি করেছে, তা ক্ষমার অযোগ্য