All for Joomla The Word of Web Design
ইদানিং ভাবনা

কয়লা সংবাদ

ফুয়াদ মাকসুদ
মাই নিউজ- বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি থেকে ১ লাখ ৪২ হাজার টন কয়লা “গায়েব” হয়ে গেছে—এই হলো খবর। এর পরের খবর হলো, কয়লার অভাবে বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেছে।
সংবাদমাধ্যমকে ধন্যবাদ।

প্রশ্ন হলো, ১ লাখ ৪২ হাজার টন কয়লা কীভাবে গায়েব হয়ে গেল? কয়লা কি কর্পুর, যে হাওয়ায় মিলিয়ে গেছে? না। এই কয়লা খনি থেকে তোলার পর অন্য কোথাও সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। কীভাবে? সম্ভবত ট্রাকে করে। আচ্ছা। একটি ট্রাকে ১০ টন কয়লা বহন করা হলে ১ লাখ ৪২ হাজার টন কয়লা সরিয়ে নিতে কতগুলো ট্রাক দরকার? কত সময় দরকার? এই পরিমাণ কয়লা কি রাতারাতি সরিয়ে ফেলা সম্ভব?
একদমই সম্ভব নয়।

তাহলে কয়লা সরানোর এই কাজ চলেছে কত দিন, কত রাত ধরে? বঙ্গজনতার মনে কি এসব প্রশ্ন জেগেছে? খোদ রিপোর্টারদের মনেও কি জেগেছে? কে জানে!

আসলে ১ লাখ ৪২ হাজার টন কয়লা চুরি হয়ে গেছে একটা স্থায়ী ও সিস্টেম্যাটিক প্রক্রিয়ায়। দীর্ঘ ১৩ বছর ধরে।

বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি থেকে কয়লা তোলার পর সেই কয়লা সেখানকার তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিদ্যুৎ উৎপাদনের কাজে ব্যবহার করার পর কিছু পরিমাণ কয়লা উদ্বৃত্ত থেকে যায়। এই উদ্বৃত্ত কয়লা বিক্রি করা হয়। কয়লা কেনে তালিকাভুক্ত ডিলারেরা।

চুরিটা হয়েছে ডিলারদের কাছে কয়লা বিক্রি করার প্রক্রিয়ায়। দৃষ্টান্তস্বরূপ, কোনো ডিলারের কাছে ২০০ টন কয়লা বিক্রি করা হলো। ডিলার ২০০ টন কয়লার দাম পরিশোধ করলেন; নথিপত্রে এই হিসাব থাকল। কিন্তু আসলে তিনি নিয়ে গেলেন ৩০০ বা ৪০০ টন কয়লা। তাঁকে এই অতিরিক্ত ১০০ বা ২০০ টন কয়লা দেওয়া হলো ঘুষের বিনিময়ে। খনি কর্তৃপক্ষের হিসাবের খাতায় থাকল ২০০ টন কয়লা বিক্রির হিসাব। অতিরিক্ত ১০০/২০০ টনের হিসাব থাকল না।

বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি কর্তৃপক্ষ সংবাদমাধ্যমকে বলেছে, ২০০৫ সাল থেকে এ পর্যন্ত, প্রায় ১৩ বছরে সেখানে মোট ১ কোটি ১০ লাখ টন কয়লা উৎপাদিত হয়েছে। এর মধ্যে ১ লাখ ৪২ হাজার টন কয়লার হিসাব পাওয়া যাচ্ছে না। এটাকে তারা দেখাতে চাইছে “সিস্টেম লস” হিসেবে। কিন্তু আসলে এটা চুরি। সিস্টেম্যাটিক থেফ্ট। চলেছে নিয়মিতভাবে, বছরের পর বছর ধরে।

এই চোরদের কী শাস্তি হওয়া উচিত?
চাকরি থেকে অপসারণ? আর বদলি?
এভাবে চোরেরা বদলি হবে ৷ বদলি হয়ে ছোট ডোবা থেকে পুকুর, পুকুর থেকে খাল তারপর নদী এরপর সাগর!!
এ ভাবেই একটি সমৃদ্ধশালী দেশ আফ্রিকার দুর্ভিক্ষ কবলিত উগান্ডায় পরিণত হবে ৷

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

শিরোনাম:
  ❖   ধর্মান্তর নিষিদ্ধ হচ্ছে ভারতে! নিষিদ্ধ ‘লাভ জেহাদ’   ❖   পানিবাহিত রোগ ও তার প্রতিরোধ   ❖   কুরবানি তাকওয়ার শিক্ষা   ❖   সামাজিক যোগাযোগ কি আমাদের অসামজিক ও অবাধ্য করে তুলছে!   ❖   কোরবানী: তাকওয়া অর্জনের অন্নতম একটি মাধ্যম   ❖   জীবনের কোনো গ্যারান্টি নেই   ❖   র‍্যাগ ডে: বিজাতীয় সংস্কৃতির নতুন উম্মাদনা   ❖   বাংলাদেশ ইসলাম ও আলেম-ওলামার দেশ   ❖   সেইজ দ্যা ডে সংস্কৃতি ও আমরা…   ❖   দুশ্চরিত্রা নারী দুশ্চরিত্র পুরুষের জন্য, দুশ্চরিত্র পুরুষ দুশ্চরিত্রা নারীর জন্য