All for Joomla The Word of Web Design
ইসলামী জীবন

জীবনের কোনো গ্যারান্টি নেই

ফারজানা আফরিন আমাতুল্লাহ
নিয়মিত লেখিকা, মাই নিউজ।

সফরের সময়টা কোথাও যাওয়ার সময় কেমন দীর্ঘ হয় বলুন তো? আমাদের জীবন তো মুসাফিরের জিবন , আমরা সফরে আছি এপার থেকে ওপারে যাওয়ার জন্য। আর সফরের শেষ প্রান্তে একটা ব্রিজ বা সাঁকো পথ সেটা হলো মৃত্যু।

আজকে এইতো ৩/৪ ঘণ্টা আগেই জীবনের শেষ খন হতো হয়ত! ঠিক সেই মুহূর্তে কি ভাবছিলাম সারাদিনের অর্জন কি ছিল, পুরো জীবন তো মরীচিকার পেছনেই ছুটলাম! তওবা কবুল না হলে কোথায় দাড়াব? সূরা আসরের তিনটি আয়াত কানে বাজছিল!

ঘটনা বলি, বাচ্চাদের রাতের খাবার খাওয়াচ্ছি। তাদের খাবার খাওয়ানোর সময় সূরা,  প্রশ্ন, গল্প জুড়ে দিতে হয় সম্পূর্ণ খাবার সময়। খাবার মাঝামাঝি ঠিক এমন সময় 🔥 ফায়ার এলার্ন বেজে উঠলো। এর আগে একবার এমন হোয়েছে ২০ সেকেন্ড এর মত, তখন বাচ্চার বাবা সাথে ছিল বললো ১/২ মিন এমন শব্দ হলে এলার্ণ এর, তাহলে রুম থাকবে না বের হয়ে যাবে। তো শব্দ প্রায় ১ মিন চলছে। টের পাচ্ছি সাথে ভয়। এর আগে নিউজ আর মিডিয়াতে এত এত আগুনের লেলিহান দৃশ্য দেখেছি যে আমার শরীরে এক বিন্দু শক্তি ছিলনা বাইরে যাওয়ার।

তখন ই সাথে আমার খিমার পরে বাচ্চাকে একটা হিজাব পরিয়ে বাইরে যাওয়ার প্ল্যান করে দরজা খুললাম। দেখলাম বাইরে অনেকে দরজা খুলে একে অপরকে জিজ্ঞেস করছে ঘটনা কি। আমি তখন কিন্তু ছুটাছুটি করিনি আবার দরজা বন্ধ করে রুম এসে বাচ্চার বাবা কে ফন করলাম। সে ধরছেনা। তখন ভাবলাম সারাদিনের অর্জন কি? দিন শেষে আল্লাহর সারা দিনের সকল আহকামগুলো পালন করেছিলাম তো?

এই ভাবনায় খেঁয়াল করলাম সে ফোন দিয়েছে , বললো সব ঠিক আছে বের হতে হবেনা। আলহামদুলিল্লাহ। কিন্তু ঐযে সাময়িক একটা প্রেসার,আমি কি ভয়টা মৃত্যুর জন্য পেয়েছি বেশি, না কবরের আযাবের পেয়েছি তার হিসাব কষে ক্লান্ত। এখনও শরীর হিম হয়ে আছে। এর আগেও একবার নামাজে ছিলাম ভূমিকম্প হয়েছে। নামাজ ছাড়িনি যা হবার হবে। তবে নামাজ শেষে বাচ্চাকে নিয়ে রুম থেকে বের হয়েছিলাম।

এক্ষেত্রে প্রাকিতিক বা মানুষ সৃষ্ঠ যে কোনো বিপদে যারা আগে ছুটোছুটি করি বিশেষ করে বোনেরা। plz প্রথমে নিজেকে পর্দা আবৃত করে নিবেন। কারণ সেটা শেষ সময় হলে আপনার রবের নির্দেশটা অন্তত বরখেলাফ হবেনা। আমি যেখানেই থাকি হাতের খুব কাছে একটা খিমাড় রাখি শুধু প্রয়োজনে জলদি পরবো বলে।

একটা ব্যাপার খেঁয়াল করলাম গভীর ভাবে আমাদের যে কোনো বিপদ হলে যেভাবে আল্লাহ তা’আলাকে স্বরণ করি, বিপদ থেকে পরিত্রাণের জন্য তার কাছে প্রার্থনা করি। ঠিক উল্টো পিঠ যদি আনন্দের সময়ও শুকরিয়া আদায় করতেন, এভাবেই আল্লাহ’কে স্বরণ করতাম সবাই। তাহলে আমাদের বিবেক নিজেদের রুখে দিতে অন্যায়ের দুয়ারে যাওয়ার আগেই। আর মৃত্যু ও অবশ্যই উত্তম রূপে ধরা দিত!

মৃত্যু যা সবাই কে স্পর্শ করে নিবে সে যেখানে ই নিজেকে সেফ মনে করুন না কেন।মৃত্যু থেকে পরিত্রাণ পাওয়া সহজ নয়।আল্লাহ তার পবিত্র বাণীতে বলেছেন “তোমরা যেখানেই থাক না কেন; মৃত্যু কিন্তু তোমাদেরকে পাকড়াও করবেই। যদি তোমরা সুদৃঢ় দূর্গের ভেতরেও অবস্থান কর, তবুও।…” (সূরা আন নিসা: ৭৮)

আমাদের দেশের যে অবস্থা, গুজবের চেয়ে গজবই বেশি হচ্ছে। মানুষ প্রাকিতিক সব নষ্ট করছে। নিজের ব্যাক্তি ধন সম্পদ বৃদ্ধি করতে প্রাকিতিক সব বিনষ্ট করছে,  ঐদিকে প্রকৃতি আমাদের উপর চড়াও হচ্ছে যার মাশুল খুব চওড়া দামে দিতে হবে।

আপনার আমার সম্পূর্ণ জিবন যদি রবের অবাধ্যতায় কাটে তাহলে মৃত্যু খনে মৃত্যুর ফেরেশতা কিভাবে জান কবচ করবেন জানেন তো? ঠিক যেভাবে নিজের উপর পুরোটা কর্ম জিবনে জুলুম করেছেন আল্লাহর বাণী অবহেলা করে,ঠিক সেইভাবে আপনার রুহ কে টেনে বের করবেন। শুনুন তাহলে ছোট্ট এই কয়েক টা আয়াত যা জুলুমকারী আর অবাধ্য ব্যাক্তির জন্য –
“যেদিন তারা ফেরেশতাদেরকে দেখবে, সেদিন অপরাধীদের জন্যে কোন সুসংবাদ থাকবে না এবং তারা বলবে, কোন বাধা যদি তা আটকে রাখত।” (সূরা আল ফুরকান: ২২)

“ফেরেশতা যখন তাদের মুখমন্ডল ও পৃষ্ঠদেশে আঘাত করতে করতে প্রাণ হরণ করবে, তখন তাদের অবস্থা কেমন হবে?” (সূরা মুহাম্মদ: ২৭)

“আর যদি তুমি দেখ, যখন ফেরেশতারা কাফেরদের জান কবজ করে; প্রহার করে, তাদের মুখে এবং তাদের পশ্চাদদেশে আর বলে, জ্বলন্ত আযাবের স্বাদ গ্রহণ কর।” (সূরা আল আনফাল: ৫০)

“ফেরেশতারা তাদের জান এমতাঅবস্থায় কবজ করে যে, তারা নিজেদের উপর যুলুম করেছে। তখন তারা অনুগত্য প্রকাশ করবে যে, আমরা তো কোন মন্দ কাজ করতাম না। হ্যাঁ নিশ্চয় আল্লাহ সববিষয় অবগত আছেন, যা তোমরা করতে। অতএব, জাহান্নামের দরজসমূহে প্রবেশ কর, এতেই অনন্তকাল বাস কর। আর অহংকারীদের আবাসস্থল কতই নিকৃষ্ট।” (সূরা নাহল: ২৮-২৯)

আবার সারাটা জীবন রবের হুকুম কম বেশি পালন করে তওবা করে মৃত্যু পেলে সেটাও উত্তম ভাবে বিনয়ের সাথে ফেরেশতা রা কবচ করবেন যার অনুভব হবে মিষ্টি হাসি দ্বারা। এই সূরা তে আল্লাহ বলেছেন, “হে প্রশান্ত মন, তুমি তোমার পালনকর্তার নিকট ফিরে যাও সন্তুষ্ট ও সন্তোষভাজন হয়ে।” (সূরা আল ফজর: ২৭-২৮) ।

জি আমাদের সবার মৃত্যু এমন ভাবে আসবে যেখানে আপনাকে সময় দেয়া হবেনা হিজাব বাধার,খাবার শেষ করার,বা বাহির থেকে ঘরে ফেরা অবধি।তাই যখন যে অবস্থায় থাকবেন রবের জিকির করবেন।নিজে এবং সন্তানদের খেলা ও খাওয়া এমনকি washroom তাদের প্রতিটা দুআ জিকির সূরা শিখিয়ে দিবেন।যেনো জীবনের শেষ সময় টা ও রবের প্রশংসায় বা আদেশ পালনে কাটে।তাহলে তার দয়ায় আমরা নাজাতের মৃত্যু পেতে পারি। ইং শা আল্লাহ।

শিক্ষা:

* নিজেকে বোনেরা সবসময় পর্দায় রাখবেন।
* বিবাহিত/অবিবাহিত যেভাবে থাকেন নিজের বা ঘরের অন্য বাচ্চাদের সব ধরনের দুআ জিকির আর শেষ এক পারা (৩০) পাড়া সূরা গুলো মুখস্থ করাবেন।
* সবার সাথে উত্তম আচরণ করবেন, কেউ বকা ঝাড়ি দিলে দাঁতে দাঁত চেপে হাসবেন।
* সবরের সর্বোচ্চ সিড়ি তে উঠে ছাদে উঠার চেষ্টা করবেন।
* প্রয়োজনে দুনিয়াবি অঙ্ক বেশি প্রয়োজন না হলে কিছু আশা করবেন না, পরকালে পাওয়ার জন্য তুলে রাখবেন।
* অন্তর তোলপাড় হোক করো কথায়, কেউ গীবত করুন,আপনি আল্লাহর কাছে শুধু নিজের সবরের জন্য দুআ করুন যেনো হাসতে হাসতে মরতে পারেন।

সর্বোপরি আপনার চেষ্টা থাকবে একজন সবরকারী মুমিন/মুমিনা হিসেবে নিজেকে তৈরি করা। পাশাপাশি দোআ করবেন সকল উম্মাহর জন্য। এই দোআ টি পড়তে পারেন সবর ও ঈমানী মৃত্যু লাভের জন্য।

*ধৈর্য লাভ এবং মুসলিম হিসেবে মৃত্যু চাওয়ার দোআ:

رَبَّنَا أَفْرِغْ عَلَيْنَا صَبْرًا وَّتَوَفَّنَا مُسْلِمِيْنَ

“হে আমাদের রব, আমাদেরকে পরিপূর্ণ ধৈর্য দান করুন এবং মুসলিম হিসাবে আমাদেরকে মৃত্যু দান করুন'” (সূরা আল আরাফ – ৭:১২৬)

আসুন রবের সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করি। তিনি দেয়ার মালিক আপনার চাওয়ার আকুতি দেখে তিনি আপনাকে দিবেন। তাই আপনার আকুতি ভরা অন্তরকে ছোট শিশুর মত করে চাইতে থাকুন।  না দেয়া পর্যন্ত অনবরত চাইতেই থাকবেন আর তার আদেশ পালন করবেন সবরের সাথে। ব্যাকুল আকুতি কখনো বিফলে যাবেনা ইং শা আল্লাহ।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

শিরোনাম:
  ❖   নবজাতক জন্ম—পরবর্তী করণীয় সম্পর্কিত ইসলামি নির্দেশনা   ❖   বাংলাদেশি বশির মালয়েশিয়ার মাহসা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিপি   ❖   ৫০ হাজার ধার দিয়ে লিখে নেন আড়াই কোটি টাকার চেক   ❖   একই পরিবারের ৩ জনের লাশ উদ্ধার বরিশালে   ❖   রুম্পার সারা শরীরের হাড় ভাঙ্গা   ❖   দেশের সব স্বাস্থ্যকেন্দ্রে বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন দেবে সরকার   ❖   মানুষের মতো বাচ্চা জন্ম দিল ছাগল!   ❖   নারীদের গণপরিবহনে চলাচল: পুলিশের ৯ পরামর্শ   ❖   “কুরআন-সুন্নাহর আলোকে মাযহাব” বইয়ের মোড়ক উন্মোচন   ❖   বিএনপি যে ধরনের অস্থিরতা তৈরি করেছে, তা ক্ষমার অযোগ্য