All for Joomla The Word of Web Design
পাঠকের কলাম

বিশ্ব ইজতেমা ২০২০ (১০-১২ জানুয়ারি)

‘দৈনিক বিশ্ব ইজতেমা’— দেশজুড়ে ইজতেমার ধ্বনি

—রেদওয়ান বিন মোর্তজা
(অতিথি লেখক)


৫৫ তম বিশ্ব ইজতেমার বিদায়ী করুণ সুর বেজে ওঠেছে। আখেরি মোনাজাতে অংশ নিয়েছেন দেশ-বিদেশ থেকে ছুটে আসা অসংখ্য-অগণিত মুসল্লি। ময়দানের মানুষ নিয়মিত বয়ান শুনেছেন, আত্মস্থ করেছেন এবং ব্যক্তি, সমাজ ও উম্মাহর কল্যাণ কামনার সবক গ্রহণ করেছেন।

একটা সময় ছিল যখন মানুষ ভাবতো, বড়দের মুখনিঃসৃত মুক্তোঝরা ইজতেমার এই বয়ানগুলো লেখার হরফে যদি পাওয়া যেত। কালের পরিক্রমায় আজ সে স্বপ্ন ও কল্পনা বাস্তবে রূপ নিয়েছে। ঢাকাসহ গোটা দেশে আজ ঝকঝকে লেখার হরফে কাগজের পাতায় মানুষের দ্বারে দ্বারে পৌঁছে যাচ্ছে ইজতেমার ধ্বনি। উপলক্ষ্য একটাই— ইজতেমাকে কেন্দ্র করে একটি জাতীয় দৈনিক প্রকাশ হওয়া। আর তা হলো— ‘বাংলাদেশ জাতীয় তাকমিল পরিষদ’ কর্তৃক প্রকাশিত ও প্রচারিত ‘দৈনিক বিশ্ব ইজতেমা।’

২০১৫ সালে মাত্র ১২ জন উদীয়মান তরুণ লেখক ও সাংবাদিকের প্রচেষ্টায় শুরু হয় ‘দৈনিক বিশ্ব ইজতেমা’র পথচলা। পত্রিকা প্রকাশের প্রথম বছরই এটি ব্যাপক সাড়া ফেলে পাঠকমহলে। ঢাকাসহ সারাদেশ থেকে বিপুলসংখ্যক পাঠক পত্রিকা অফিসে ফোন করে এবং মেইল করে কর্তৃপক্ষকে এ ধরনের উদ্যোগ গ্রহণের জন্য সাধুবাদ জানায় এবং তাঁদের জোর দাবি ছিল, এ পত্রিকাটি যাতে প্রতি বছর ইজতেমার সময় প্রকাশিত হয়।

বিপুল পাঠকপ্রিয়তাকে স্বাগত জানিয়ে নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও পত্রিকাটি টিকিয়ে রাখে কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যে পত্রিকাটি সাধারণ মানুষ এবং আলেম সমাজের আস্থা অর্জন করেছে। বর্তমানে এটি ইজতেমা কেন্দ্রিক একমাত্র জনপ্রিয় ও বহুল প্রচারিত পত্রিকা।

প্রতিষ্ঠার শুরুর গল্প জানতে চাইলে ‘দৈনিক বিশ্ব ইজতেমা’র সম্পাদক জাকারিয়া মাহমুদ বলেন, ‘আমরা শুরুতে ১২ জন উদ্যোক্তা সহ মোট ৮০ জনের একটি লেখক, প্রতিবেদক, প্রুফ রিডার ও সম্পাদকদের সমন্বিত টিম পত্রিকাটি শুরু করি। তখন বাজারে এ সংক্রান্ত আরো কয়েকটি পত্রিকা ছিল। কালের আবর্তে আজ সবই হারিয়ে গেছে। আল্লাহর রহমতে আমরা এখনো টিকে আছি।’

দৈনিক বিশ্ব ইজতেমার এই বিপুল পাঠকপ্রিয়তার নেপথ্যের কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা বরাবরই পাঠকদের চাহিদা পূরণের চেষ্টা করেছি এজন্যই পাঠক আমাদের ভালোবাসে।’
সালমান সাঈদ নামক এক তাবলিগের সাথীর সাথে কথা বলে জানা যায়, ‘দৈনিক বিশ্ব ইজতেমার ব্যাপক জনপ্রিয়তার কারণে আমাদের পত্রিকা সংগ্রহের জন্য হকারের কাছে কাড়াকাড়ি পর্যন্ত করতে হয়।’

পত্রিকাটি এখন দেশের সীমানা পেরিয়ে ভারত, পাকিস্তানসহ আরব বিশ্বে যাচ্ছে বলে জানান পত্রিকার বার্তা সম্পাদক হাবীবুল্লাহ সিরাজ। তবে সময়ের অভাবে বাংলাভাষা ছাড়া অন্য ভাষায় অনুবাদ করে পত্রিকাটি প্রকাশ করা এখনো সম্ভব হয়ে ওঠেনি। তাই বাংলা ভার্সনই সংগ্রহ করে নিচ্ছে সেসব দেশের বাঙালি পাঠকরা। চলমান ২০২০ সালের ৫৫ তম ইজতেমায় পত্রিকাটি হয়ে উঠেছে আরও বর্ণীল ও সৃজনশীল। দেশ ও জাতির কল্যাণে প্রতি বছর পত্রিকাটির প্রকাশ অব্যাহত থাকুক— এই কামনা পাঠক মহলের।

মাই নিউজ/মাহদী

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

শিরোনাম:
  ❖   চলে গেলেন হেফাজতের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী   ❖   আমাদের চলতে হবে সুন্নাহ এবং উম্মাহকে সাথে নিয়ে   ❖   হাটহাজারির ছাত্র আন্দোলন সফলতা, প্রশ্ন ও বিভ্রান্তি নিয়ে কিছু কথা   ❖   হে আল্লাহ! জাতির ওপর এই বটবৃক্ষের সুশীতল ছায়া দীর্ঘ করে দাও   ❖   নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেলেন নেতানিয়াহু   ❖   আল্লামা আহমদ শফী’র ওপর আমাদের রাগ ছিল, বিদ্বেষ নয়   ❖   হাটহাজারী মাদরাসা থেকে মাওলানা আনাছ মানাদীকে অব্যাহতি   ❖   এশার নামাজের পর বৈঠকে বসবেন শুরা সদস্যগণ   ❖   মসজিদে গ্যাস বিস্ফোরণে নিহত ও আহতদের ক্ষতিপূরণ ও দোষীদের কঠোর শাস্তি দিতে হবে- প্রিন্সিপাল সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ মাদানী   ❖   মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় আল্লামা বাবুনগরীর শোক: ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবী