All for Joomla The Word of Web Design
বিশেষ কলাম

স্বেচ্ছাচার, স্বজনপ্রীতি ও স্বৈরাচার

সৈয়দ শামসুল হুদা

সম্পাদক, নুর বিডি ডটকম

মানুষ যখন বাধাহীন ক্ষমতা ভোগ করে তখন পর্যায়ক্রমে প্রথমে স্বেচ্ছাচার হয়ে উঠে। এটাকে স্থায়ী করার জন্য স্বজনপ্রীতির আশ্রয় নিতে থাকে। অত:পর একসময় তিনি স্বৈরাচারে পরিণত হন। আমরা স্বৈরাচার বলতে শুধু মরহুম এরশাদ সাহেবকেই কল্পনা করি। আসলে রাষ্ট্রে যেমন স্বৈরাচার আছে, সমাজে আছে, পরিবারে আছে, প্রতিষ্ঠানেও আছে। কত স্বৈরাচার কত জায়গায় ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে তা বুঝতে সেই জায়গার দুর্বল মানুষদের একটু খোঁজ-খবর নিলেই জানা যাবে।

স্বৈরাচার হওয়ার জন্য প্রথমে স্বেচ্ছাচারি হয়ে উঠে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দেখবেন, অনেক প্রতিষ্ঠান প্রধান প্রথমে খুব সুনামের সাথে কাজ করেন। অতঃপর মানুষ যখন তার শুধু সুনামটাই দেখে, তার মধ্যেও যে খারাপ দিক থাকতে পারে সেটা ভুলে যায়। এ সুযোগে তিনি জবাবদিহিতার উর্ধ্বে উঠে আসেন। তখনই তিনি নিজেকে ধীরে ধীরে স্বেচ্ছাচারি হিসেবে গড়ে তুলেন। কাজ করতে থাকেন। কিছুদিন বিনা বাধায় স্বেচ্ছাচারি জীবন যাপনের পর যখন চিন্তা করেন আমার ভবিষ্যতও বাধামুক্ত করা দরকার, তখন তিনি ধীরে ধীরে স্বজনপ্রীতির রোগে ভোগতে থাকেন। আর এই কাজটি করতে গিয়ে দেখেন তার এই কাজের ক্ষেত্রে কে কে বাধা সৃষ্টি করতে পারে, সেই সব ব্যক্তিকে পর্যায়ক্রমে প্রতিষ্ঠান থেকে নানা অজুহাতে বিদায় হতে হয়। যোগ্য, মেধাবী, পরিশ্রমি কর্মী, শিক্ষক, যোগ্য সহকারীদের আস্তে আস্তে সরাতে থাকেন। প্রথমে দুর্বল জায়গায় পোষ্টিং এর ব্যবস্থা করেন। পর্যায়ক্রমে যোগ্য শিক্ষকদের, মেধাবী কর্মচারীদের নানা তোহমত, নানা অভিযোগ দিয়ে বিদায়ের ব্যবস্থা করেন।

এভাবেই চলছে আমাদের দেশের প্রতিষ্ঠানগুলো। অনেক সময়ই দেখা যায় নামী-দামী প্রতিষ্ঠানে উচ্চ পর্যায়ের সুনামের সাথে কর্মরত কোন কর্মকর্তা হঠাৎ করে এমন সব অভিযোগের সম্মুখীন হন, যা তিনি কল্পনাও করেননি। কিন্তু ক্ষমতার জোরে বস, বা প্রতিষ্ঠান প্রধান যোগ্য, মেধাবীদের বহিস্কার করে। অপমান করে বিদায় করে দেয়। অনেকেই চোখের পানি ফেলতে ফেলতে জীবন সায়াহ্নে এসে প্রতিষ্ঠান ছেড়ে বিদায় নেন। আর সে সব শুন্য জায়গাগুলো প্রতিষ্ঠান প্রধান বা বস তাদের শালা, সমুন্দি, ছেলে, মেয়ে, মামু, খালা দিয়ে ভরে ফেলেন। এসব কাজ করতে গিয়ে যখন কেউ বাধার সম্মুখীন হন না, তখন দিনে দিনে তিনি স্বৈরাচারে পরিণত হন।

স্বেচ্ছাচারিগণ যখন বাধাহীন জীবন যাপন করে, তখন তারা একধরণের প্রভুতে পরিণত হয়। বিলাসী জীবন যাপনে অভ্যস্থ হয়ে উঠেন। আর এটা দেখে এক শ্রেণির সুযোগ সন্ধানী অফিস সহকারী, সাধারণ শিক্ষক তোষামোদী জ্ঞানে পারঙ্গম হয়ে উঠেন। এই তোষামোদী চক্র বসকে বুঝতেই দেয় না, আাসলে মানুষ তাকে নিয়ে কী ভাবছে। সাধারণ কর্মচারীদের ভালোবাসা বা ঘৃণায় তার যেন কিছুই যায় আসে না। বে-পরোয়া জীবন যাপন করে। আর যখন এমন পর্যায়ে কেউ পৌঁছে তখন তার আর পেছনে ফিরে আসার সুযোগ থাকে না।

এসব অন্ধকার বলয় ভাঙ্গতে তরুনরাই পারে ঘুরে দাঁড়াতে। যুগে যুগে এসব অন্ধকার বলয় তৈরী হয়েছে। আবার সেগুলো ভেঙ্গেও পড়েছে। তরুনদের এই রুখে দাঁড়ানোর মধ্যেই পৃথিবীর সকল উত্থান-পতন ঘটেছে। তরুনরা যেহেতু জী-হুজুর মার্কা চরিত্র লালন করে না, সেহেতু তরুনদেরকে সহজে বাগে আনা যায় না। তরুনদের মধ্যে এক ধরণের প্রতিবাদি মানসিকতা থাকে। এটাকে সঠিক পথে পরিচালনা করা গেলে সমাজ ভালোর দিকে মোড় নেয়, আর খারাপ লোকদের দ্বারা পরিচালিত হলে সমাজ ও রাষ্ট্র আরো বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। আমাদের দেশের ছোট্ট দুটি আন্দোলনের কথা এখানে স্মরণ করতে পারি। শিশু-কিশোর নেতৃত্বে নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলন এবং কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের নেতৃত্বে কোটা সংস্কার আন্দোলনে তাদের সাহস আমরা দেখেছি।

এই সমাজের সর্বত্র স্বেচ্ছাচারি বলয় ভাঙ্গতে ওহে তরুন জেগে উঠ। অন্ধভক্তির বলয় ভাঙ্গতে জেগে উঠ। কোথাও অনাচার দেখলে রুঁখে দাঁড়াও। সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে যে বিষবাষ্প ছড়িয়ে পড়েছে তার শেকড় উপড়ে ফেলতে হবে। সমাজের সর্বস্তরে নৈতিকতার যে ধ্বস নেমেছে তা রুখে দাঁড়াতে তরুনদের দাঁড়াতে হবে। অপরাধীদের অন্তরাত্মায় কাঁপন তৈরী করতে হবে। দুর্র্নীতিবাজদের মূলোৎপাটন করতে হবে। কী দ্বীনি অঙ্গন, কী সাধারণ অঙ্গন সর্বত্রই আজ এ রোগ ছড়িয়ে পড়েছে। মিথ্যা ক্ষমতার দম্ভ চূর্ণ করতে তারুণ্যের বিপ্লবী চেতনা জাগিয়ে তোলার কোন বিকল্প নেই।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

শিরোনাম:
  ❖   কাল থেকে খুলে দেওয়া হচ্ছে আরব আমিরাতের মসজিদ   ❖   এডিআইও আবুধাবিতে স্টার্টআপের তহবিলের প্রবেশাধিকার বাড়ানোর জন্য শোরুক পার্টনার্স বেদায়া তহবিলে বিনিয়োগ করেছে   ❖   বাইতুল মোকাররমের খতিব হতে পারেন মাওলানা হাসান জামিল সাহেব!   ❖   ভারতীয় একজন কিডনী ব্যর্থতায় আক্রান্ত শিক্ষার্থীকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, তুমি নিরাপদ হাতে রয়েছ   ❖   উচ্চ আদালতের স্থিতিবস্থা জারির পরও ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে রাজধানীর একটি মসজিদ   ❖   করোনাকালে ক্বওমী মাদরাসাগুলোর ১২ চ্যালেঞ্জ   ❖   চাকরিচ্যুৎ সেই ইমামকে স্বপদে বহাল করতে লিগ্যাল নোটিস   ❖   আজারবাইজানকে ১১ টন চিকিত্সা সহায়তা পাঠিয়েছে আমিরাত   ❖   রাতে নৌকার ছাদে জানাজা পড়ে লাশ ফেলা হতো সাগরে : খোদেজা বেগমের দুঃসাহসিক সমুদ্রযাত্রা   ❖   স্বেচ্ছাচার, স্বজনপ্রীতি ও স্বৈরাচার