All for Joomla The Word of Web Design
উপ-সম্পাদকীয়

অক্ষমদের ক্ষমতা ছেড়ে দেয়া উচিত নয় কি?

সৈয়দ শামসুল হুদা

সম্পাদক, নুরবিডি ডট কম

প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ এবং সংগঠন পরিচালনার ক্ষেত্রে কোন অবস্থাতেই এমন কোন বয়োজ্যেষ্ঠকে শীর্ষ পদে অধিষ্ঠিত রাখা উচিত নয় যিনি ওই সংগঠন বা প্রতিষ্ঠানের প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে স্বয়ংসম্পূর্ণ নন। মুরুব্বী বা বয়োজ্যেষ্ঠদের শুধুমাত্র তাজকিয়াতুন নাফস বা তালিমি ময়দানে দায়িত্বে রাখা যেতে পারে।

আজকে বেফাক এবং হাইয়াতুল উলয়ায় এমন একজন চেয়ারম্যান এবং মহাসচিব নিযুক্ত রয়েছেন যারা মিডিয়ার সামনে কথা বলার যোগ্যতা রাখেন না। সমসাময়িক সমস্যা সমাধানের ক্ষমতা রাখেন না। সুস্পষ্টভাবে কোনো সংকটের ব্যাখ্যা দেওয়ার অধিকার রাখেন না। এমতাবস্থায় তাদের এই পদে বহাল থাকা গোটা কওমি জগতের উপর জুলুম ছাড়া আর কিছুই নয়।

বেফাক এর মহাসচিব মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস সাহেব হাইয়াতুল উলিয়া এর মিটিং এ কওমি মাদ্রাসা খোলার ব্যাপারে যখন এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন যে, আগামী আটই আগস্ট সকল মাদ্রাসা খোলা হবে, তখনই এক অডিও বার্তায় এটা প্রকাশ হয় যে, উনি বলেন- একটা ঘোষণা দিলাম আর কি, দেখা যাক কি হয়। এই যদি হয় একজন মহাসচিবের মন্তব্য তাতে বোঝা যায় উনি জাতীয় দায়িত্ব পালনের কোনরকম যোগ্যতা রাখেন না।

আমাদের কওমি অঙ্গনে সকল সাংগঠনিক ও প্রাতিষ্ঠানিক শীর্ষ পদে দুর্ভাগ্যজনকভাবে এমন সব মুরুব্বিগণ এখনো দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন যারা শারীরিক ও মানসিকভাবে দায়িত্ব পালনে পূর্ণতার সাথে সক্ষম নন। বেফাক ও হাইয়াতুল উলিয়া এর বর্তমান দায়িত্বশীলগণ নানাভাবে চরম বিতরকের মধ্যে পড়ে গিয়েছেন। উনাদের উচিত আলেমদের ভবিষ্যতের স্বার্থে সকল পদ থেকে অব্যাহতি নেয়া। ক্ষমতা ও পদের লোভ নাই” এমন ওয়াজ সারা জীবন উনারা করেছেন। অথচ পদ ধরে রাখার জন্য হেন কোন কাজ নাই যা তারা করছেন না। উনাদের জন্য আফসোস হয়, আমাদের জন্য এটা লজ্জাজনক। আমরা উনাদেরকে এতদিন বিনা বাক্যব্যয়ে মুরুব্বী হিসেবে মেনে এসেছি।

আজ হাইয়াতুল উলয়া যে সিদ্ধান্ত দিয়েছে তা কতটা হাস্যকর, কতটা বালখিল্যসুলভ তা তারা নিজেরাও বুঝতে পারছেন না। সমস্যা সমাধানের কোন দক্ষতা, যোগ্যতা দেখাতে পারছেন না। অথচ আমরা দেখতে পাচ্ছি পাকিস্তানে যথাসময়ে পাকিস্তানের বেফাকুল মাদারিস পরীক্ষা নিয়েছে, কোরবানির পরে নতুন করে মাদ্রাসা চালুর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দিয়েছে।

বাংলাদেশের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চালু রয়েছে । সকল স্বাভাবিক অফিশিয়াল কার্যক্রম চালু হয়েছে। অথচ মাদ্রাসাগুলো এখনো চালু করা সম্ভব হয়নি। উপরন্তু মাদ্রাসা চালু নিয়ে বোর্ড এর দায়িত্বশীলগণ কওমি মাদরাসার আলেম ওলামাদের সাথে তামাশা করছেন। মনগড়া তারিখ ঘোষণা করছেন।

আজ তারা জাতীয় কোন ইস্যূতে কথা বলতে পারছেন না। শুধুই পদ-পদবি নিয়ে দৌড়ঝাঁপ। বেফাক ও হাইয়াতুল উলয়ায় অসংখ্য মেধাবী আলেম রয়েছেন তাদেরকে দায়িত্ব না দিয়ে কতিপয় ক্ষমতালোভী অযোগ্য লোকেরা নানা ছলে বলে পদ বাগিয়ে নিয়ে এখন সবকিছু ধ্বংস করে দিচ্ছেন। এভাবে এদেশের লক্ষ লক্ষ আলেম উলামার মন ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। তাদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। এতটা হতাশা ইতিপূর্বে আর কখনোই কওমি অঙ্গনে দেখা যায় নাই।

অবিলম্বে বেফাক এর শুরা ও আমেলা মিটিং ডেকে সকলের মতামতের প্রেক্ষিতে কমিটি পুনর্গঠন এর জন্য আমরা আহ্বান জানাচ্ছি।

০৫.০৮.২০২০

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password

শিরোনাম:
  ❖   মসজিদে গ্যাস বিস্ফোরণে নিহত ও আহতদের ক্ষতিপূরণ ও দোষীদের কঠোর শাস্তি দিতে হবে- প্রিন্সিপাল সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ মাদানী   ❖   মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় আল্লামা বাবুনগরীর শোক: ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবী   ❖   কে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ?   ❖   ইসরায়েলকে বয়কট করার আইন বাতিল আমিরাতের   ❖   শারজাহ বিএনপি’র উদ্যোগে ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন   ❖   মার্কিন-ইসরায়েলি প্রতিনিধি সংযুক্ত আরব আমিরাতে পৌঁছেছেন   ❖   মোহাম্মদ বিন রাশিদ জ্বালানি, অবকাঠামো, আবাসন ও পরিবহন খাতে পরিচালনার রোডম্যাপ সম্পর্কে জানিয়েছেন   ❖   সংযুক্ত আরব আমিরাতের সহায়তা-জাহাজ ইয়েমেনের আল মুকাল্লা বন্দরে পৌঁছেছে   ❖   তিস্তায় চীনা বিনিয়োগ নিয়ে চাপের মুখে ভারত?   ❖   শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়ানোর কথা ভাবছে সরকার